১২ কেজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ২০২৪

আপনি নিশ্চই ১২ কেজি গ্যাস সিলিন্ডারের আজকের দাম ২০২৪ সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আজকের লেখাটি আপনার জন্য। তো কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) আবারো এলপিজির দাম বাড়িয়েছে। এবার ১২ কেজির এলপিজির দাম ৮ টাকা বাড়িয়ে ১ হাজার ৪৮২ টাকা নির্ধারণ করেছে। এলপিজির দাম বারবার বৃদ্ধিতে জনগণ বেশ হতাশ। 

কারণ, দেশের বিপুল সংখ্যক মানুষ রান্নার জ্বালানি হিসেবে এলপিজি ব্যবহার করে । যার কারণে গ্যাসের দাম বৃদ্ধিতে তাদের সংসার খরচ বেড়ে যাবে। [তথ্যসূত্রঃ somoynews]

এলপিজি গ্যাসের দাম কত?

এলপিজি গ্যাস বর্তমানে রান্নার জ্বালানি হিসেবে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। তবে, বাজারে এলপিজির দাম বারবার বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ মানুষের রান্নার খরচও বেড়ে চলেছে। তাই বিভিন্ন সময় আমাদের এলপিজি গ্যাসের দাম জানার দরকার হয়। সে কারণে নিচের তালিকায় বর্তমান সময়ের এলপিজি গ্যাসের দাম শেয়ার করা হলো। 

[নোটঃ বিআরসি নির্ধারিত প্রতি কেজি এলপিজির মূল্য: ১১৩ টাকা ৬১ পয়সা]

  1. ৫ কেজি এলপিজি: ৫৬৮ টাকা
  2. ১২ কেজি এলপিজি: ১৩৬৩ টাকা
  3. ১৫ কেজি এলপিজি: ১৭০৪ টাকা
  4. ১৪ কেজি এলপিজি: ১৫৯০ টাকা
  5. ৩৫ কেজি এলপিজি: ৩৯৭৬ টাকা

মনে রাখবেন, বিভিন্ন কোম্পানি ভেদে এলপিজি গ্যাসের দাম কিছুটা কম বা বেশি হতে পারে। তবে অধিকাংশ সময় আপনি উপরের উল্লেখিত দামে এলপিজি গ্যাস কিনতে পারবেন।

বসুন্ধরা ১২ কেজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম

বাংলাদেশের রান্নাঘরের বাজারে বসুন্ধরা এলপিজি গ্যাস একটি পরিচিত নাম। গ্রাম থেকে শহর, সর্বত্র এর ব্যবহার ব্যাপকভাবে লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু সম্প্রতি ৮০ টাকা বৃদ্ধি পেয়ে ১২ কেজির বসুন্ধরা এলপিজি গ্যাসের দাম দাঁড়িয়েছে ১,৩৬৩ টাকায়। এই দাম বৃদ্ধি সাধারণ মানুষের জন্য অনেক ভোগান্তি সৃষ্টি করবে।

বাজারে ঘুরে দেখা যায়, নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে বসুন্ধরা এলপিজি গ্যাস। অনেক দোকানদার অতিরিক্ত মূল্য আদায়ের অজুহাত হিসেবে দেখাচ্ছেন পরিবহন খরচ। এই দাম বৃদ্ধির প্রভাব পড়েছে রান্নাঘরের খরচের উপর। নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য এলপিজি গ্যাস কেনা এখন কঠিন হয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে সরকারের দ্রুত হস্তক্ষেপের দাবি জানাচ্ছেন সচেতন মহল। 

১৪ কেজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম

তীব্র জ্বালানি সংকটের মধ্যে বারবার ঘা দিচ্ছে এলপিজি গ্যাসের দাম বৃদ্ধি। তৃতীয় দফায় দাম বাড়ার পর ১৪ কেজি গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম উঠেছে ১৫৯০ টাকায়। সরকার নির্ধারিত এই দাম প্রযোজ্য সকল ব্র্যান্ডের গ্যাসের জন্য, যার মধ্যে রয়েছে জনপ্রিয় বসুন্ধরা গ্যাস। গত মাসের তুলনায় এবার দাম বেড়েছে ৭৯ টাকা, যা নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য ভারী বোঝা হয়ে পড়েছে।

নিত্য প্রয়োজনীয় এই জ্বালানির দাম বৃদ্ধি চরম অসন্তোষ সৃষ্টি করেছে জনগণের মধ্যে। গৃহস্থালি ব্যবহার এর পাশাপাশি পরিবহন এবং অন্যান্য ক্ষেত্রেও ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয় এলপিজি গ্যাস। ফলে এর দাম বৃদ্ধি সরাসরি প্রভাব ফেলেছে সকল স্তরের মানুষের জীবনযাত্রার উপর।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানির দাম বৃদ্ধি এবং ডলারের বিপরীতে টাকার মূল্যহ্রাস এই দাম বৃদ্ধির প্রধান কারণ। তবে সরকারের পক্ষ থেকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে ভবিষ্যতে আরও এলপিজি গ্যাসের দাম বৃদ্ধি পেতে পারে ।

১৫ কেজি এলপি গ্যাসের দাম

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) কর্তৃক নির্ধারিত ১৫ কেজি এলপিজি গ্যাসের দাম ১,৭০৪ টাকা। কিন্তু বাস্তবতা হলো, বাজারে এটি ১৭২০ টাকা থেকে ১৭৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বিইআরসি নিয়মিতভাবে এলপিজি গ্যাসের দাম পর্যালোচনা করে এবং বাজার পরিস্থিতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে দাম নির্ধারণ করে। তবে বাজারে কিছু অসৎ ব্যবসায়ী সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে এলপিজি গ্যাস বিক্রি করে অতিরিক্ত লাভের আশা করে থাকে।

খালি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম

গ্যাস প্রায় অধিকাংশ মানুষের সবচেয়ে প্রয়োজনীয় অংশ। তবে, গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখা সরকারের জন্য দীর্ঘদিনের চ্যালেঞ্জ হয়ে পড়েছে। ভর্তুকি দেওয়ার পরেও একটি খালি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা, যা প্রথম অবস্থায় নির্ধারিত মূল্যের থেকে অনেক বেশি। 

ভাবছেন, এই অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির পেছনে কী কারণ লুকিয়ে আছে?

আসলে গ্যাস সিলিন্ডারের দাম নির্ধারণ নীতি বেশ অস্বচ্ছ। বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি হয়, কিন্তু সকল কোম্পানি একই দামে বিক্রি করে না। কত টাকা ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে, তাও স্পষ্টভাবে জানা যায় না। এই অস্বচ্ছতার কারণে বাজারে নিয়ন্ত্রণ আনতে পারছে না সরকার।

নতুন গ্যাস সিলিন্ডারের দাম

গ্যাস সিলিন্ডারের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য সরকার নিয়মিত দাম নির্ধারণ করে থাকে। কিন্তু বাজারে প্রায়শই দেখা যায়, অসাধু ব্যবসায়ীরা সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশি দামে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করছে।

সম্প্রতি, সরকার ১২ কেজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ১৩৬৩ টাকা নির্ধারণ করেছে। কিন্তু বাজারে অনেক দোকানে এই সিলিন্ডার ১৪০০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

এই অতিরিক্ত দাম নেওয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন অজুহাত দেখান। কেউ কেউ বলেন, পরিবহন খরচ বেশি বলে তাদের দাম বাড়াতে হচ্ছে। আবার কেউ কেউ বলেন, সরকার নির্ধারিত মূল্যে তাদের গ্যাস সিলিন্ডার পাওয়া যাচ্ছে না।

কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সরকার নির্ধারিত মূল্যে সারাদেশে পর্যাপ্ত পরিমাণে গ্যাস সিলিন্ডার সরবরাহ করা হচ্ছে।

যমুনা গ্যাসের দাম

যমুনা গ্যাস সিলিন্ডারের দাম?

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির ধাক্কা এবার এলপিজি গ্যাসেও। বাজারে অন্যান্য গ্যাসের সাথে যমুনা গ্যাসের দামও বেড়েছে। ১২ কেজি যমুনা গ্যাসের সিলিন্ডারের নতুন দাম ১৩৬৩ টাকা যেটি এর আগে ছিল ১২৮৪ টাকা। ১৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম ১৭০৪ টাকা এবং ২৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম ২৮৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিইআরসি চেয়ারম্যান বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে এলপিজির দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশেও গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে। নতুন দাম কার্যকর হলে রান্নার খরচ আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন ভোক্তারা। ইতোমধ্যেই চাল, ডাল, তেলসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। গ্যাসের দাম বৃদ্ধিতে নিম্ন আয়ের মানুষের জীবনযাত্রা আরও কঠিন হয়ে পড়বে বলে মনে করছেন তারা।

বসুন্ধরা গ্যাসের দাম কত?

বাংলাদেশের রান্নাঘরে এলপিজি গ্যাসের জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর মধ্যে বসুন্ধরা এলপিজি তার নিরাপত্তা, বিশ্বাসযোগ্যতা এবং সুবিধাজনক ব্যবহারের জন্য ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। বর্তমানে বাজারে বসুন্ধরা এলপিজির বিভিন্ন ওজনের সিলিন্ডারের দাম নিম্নরূপ:

বসুন্ধরা গ্যাসের দাম
  • ১২ কেজি: ১,৪৮২ টাকা
  • ১৪ কেজি: ১,৭২৯ টাকা
  • ৩০ কেজি: ৩,৭০৫ টাকা
  • ৩৫ কেজি: ৪,৩২৩ টাকা
  • ৪০ কেজি: ৪,৯৪০ টাকা
  • ৪৫ কেজি: ৫,৫৫৮ টাকা

বাজারে বসুন্ধরা এলপিজির বিকল্প হিসেবে টোটাল, বাটেক্স, যমুনা, ওরিয়ন, ইত্যাদি কোম্পানির এলপিজি সিলিন্ডারও পাওয়া যায়।

ওমেরা গ্যাসের দাম

ওমেরা গ্যাসের দাম কত?

বাংলাদেশের এলপিজি গ্যাস বাজারে ওমেরা একটি বিখ্যাত ও জনপ্রিয় নাম। ন্যায্য দামে উন্নত মানের গ্যাস সরবরাহের জন্য ওমেরা গ্রাহকদের আস্থা অর্জন করেছে। আজকের বাজারে এলপিজি গ্যাসের দাম নিয়মিত ওঠানামা করছে। তাই অনেকেই ওমেরা গ্যাসের আজকের দাম সম্পর্কে জানতে চায়।

তো বর্তমান সময়ে ১২ কেজি ওমেরা গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ১,৪০০ টাকা। ৫.৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম ৭০০ টাকা এবং ৩৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম ৪,২০০ টাকা। ওমেরা গ্যাস সরকার নির্ধারিত নীতি অনুসারে দাম নির্ধারণ করে। আন্তর্জাতিক বাজারের এলপিজি গ্যাসের দাম, সরকারি কর এবং স্থানীয় বাজারের পরিস্থিতি বিবেচনা করে প্রতি মাসে দাম পর্যালোচনা করা হয়।

এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার এর মূল্য তালিকা ২০২৪

রান্নাঘরের অপরিহার্য সঙ্গী এলপিজি সিলিন্ডার। বাজারে বিভিন্ন ওজনের সিলিন্ডার পাওয়া যায়, তবে দামের দিক থেকে বেশ পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়। আপনার রান্নার জন্য সঠিক দামে গ্যাস সিলিন্ডার কিনতে অবশ্যই আপনাকে সঠিক দাম জানতে হবে। আর নিচের তালিকা থেকে আজকের বাজারে বিভিন্ন ওজনের এলপিজি সিলিন্ডারের দাম সম্পর্কে জেনে নিন।

এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারগ্যাস সিলিন্ডার দাম
১২ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার১৪৭৪ টাকা
১৫ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার১৮৪২ টাকা
১৬ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার১৯৬৫ টাকা
১৮ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার২২১১ টাকা
২০ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার২৪৫৬ টাকা
২২ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার২৭০২ টাকা
২৫ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার৩০৭১ টাকা
৩০ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার৩৬৮৫ টাকা
৩৩ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার৪০৫৩ টাকা
৩৫ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার৪২৯৯ টাকা
৪৫ কেজির গ্যাস সিলিন্ডার৫৫২৭ টাকা

আপনার জন্য আমাদের কিছুকথা

প্রিয় পাঠক, বর্তমান সময়ে গ্যাস সিলিন্ডারের দাম প্রতিনিয়ম উঠানামা করছে। সেজন্য গ্যাস সিলিন্ডার কেনার আগে আমাদের দাম জানার দরকার হয়। আর সেই সময়ে যেন আপনি সঠিক তথ্য জানতে পারেন সে কারণে আজকের এই আর্টিকেল টি লেখা হয়েছে। আশা করি, এই লেখাটি আপনার জন্য অনেক হেল্পফুল হবে। আর আপনি যদি এমন ধরনের অজানা বিষয় গুলো সহজ ভাষায় জানতে চান তাহলে আমাদের সাথে থাকবেন। ধন্যবাদ।

Leave a Comment